Facebook Google Plus Twiter YouTube

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন বিষয়ে নাগরিকদের অভিযোগ জানাতে ভারতের নির্বাচন কমিশন চালু করছে “ই-ভিজিল” মোবাইল অ্যাপ

PIB

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন বিষয়ে নাগরিকদের অভিযোগ জানানোর জন্য “ই-ভিজিল” নামে একটি মোবাইল অ্যাপ চালু করেছেন।    “ই-ভিজিল” হচ্ছে গ্রাহক বান্ধব এবং সহজে ব্যবহারে উপযুক্ত একটি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবস্হা। দেশের কোনও জায়গায় নির্বাচন ঘোষিত হলে এটি কার্যকর হবে। তবে এই অ্যাপটির একটি পরীক্ষামূলক বিটা ভার্সান যে কোনও সময় সাধারণ মানুষ ও নির্বাচন কর্মীরা ডাউনলোড করে এখান থেকে তথ্য পাঠাতে পারবেন এবং এই অ্যাপের বৈশিষ্ট বিষয়ে অবগত হতে পারবেন। এই অ্যাপটির পরীক্ষা সফল হওয়ার পর ছত্তিশগড়, মধ্যপ্রদেশ, মিজোরাম এবং রাজস্হানের আসন্ন নির্বাচনের সময় সাধরণভাবে ব্যবহারের জন্য পাওয়া যাবে। এই চারটি রাজ্য পর্যায়ের বিধানসভা নির্বাচনে এই অ্যাপটির সফল প্রয়োগের পর পরবর্তী লোকসভা নির্বাচনের সময় এটিকে ব্যাপকভাবে কাজে লাগানোর উদ্যোগ নেওয়া হবে।
    এই অ্যাপ ডাউনলোড ও ব্যবহার করার জন্য অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট ফোনে ক্যামেরা, ভালো ইন্টারনেট সংযোগ এবং ভৌগলিক অবস্হান জ্ঞাপন সংক্রান্ত জিপিএস পরিষেবা থাকতে হবে। সমস্ত অত্যাধুনিক অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট ফোনেই এই অ্যাপটি ব্যবহার করা যাবে।
     “ই-ভিজিল” অ্যাপটি ব্যবহার করে নির্বাচন ঘোষণার দিন থেকে নির্বাচন পরবর্তী সময় পর্যন্ত আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘন বিষয়ে অভিযোগ জানানো যাবে। কোনও নাগরিক এ সংক্রান্ত বেআইনী কাজ দেখার কয়েক মিনিটের মধ্যেই রিটার্নিং অফিসারের অফিসে না গিয়েও তাৎক্ষণিকভাবে এই ধরণের অভিযোগ জানাতে পারবেন।
    অভিযোগের সমর্থনে নাগরিকরা ছবি বা ভিডিও তুলে পাঠাতে পারবেন। স্বংয়ক্রিয় পদ্ধতিতে এই অ্যাপ থেকেই অভিযোগকারির ভৌগলিক অবস্হান জানা যাবে। অভিযোগ জানানোর পর অভিযোগকারিকে একটি আইডি সংখ্যা দেওয়া হবে, যার মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি তাঁর মোবাইল ফোনেই এ বিষয়ে কি ব্যবস্হা নেওয়া হয়েছে তা জানতে পারবেন। অভিযোগকারিরা এ ধরনের একাধিক অভিযোগ জানাতে পারবেন এবং তাঁদের পরিচয় সম্পূর্ণ গোপন রাখা হবে।
    অভিযোগ জানানোর পরেই তা জেলা কন্ট্রোল রুমে এবং তৃণমূল স্তরে অফিসে স্বংয়ক্রিয়ভাবে চলে যাবে। সংশ্লিষ্ট অফিস বা ফ্লাইং স্কোয়ার্ডের কাছে এমন এক অত্যাধুনিক যান্ত্রিক ব্যবস্হা থাকবে যার মাধ্যমে সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্হলে পৌঁছে অভিযোগ নিষ্পত্তির জন্য ব্যবস্হা নেওয়া সম্ভব হবে। অভিযোগ বিষয়ে ব্যবস্হা গ্রহণের পর তার রিপোর্ট রিটার্নিং অফিসারের কাছে পাঠানো হবে। অভিযোগ বা ঘটনাটি সত্য বলে প্রমানিত হলে সেটিকে ভারতের নির্বাচন কমিশনের জাতীয় অভিযোগ নিষ্পত্তি পোর্টালে আরও বিস্তারিত ব্যবস্হা গ্রহণের জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হবে।
    এই অ্যাপটি যাতে কোনভাবেই অপব্যবহার করা না হয় তার জন্যও এর মধ্যে নিজস্ব ব্যবস্হা থাকবে। তাৎক্ষনিকভাবে গৃহীত ছবি বা তথ্য না পাঠিয়ে আগে থেকে রেকর্ড করা বা তোলা পুরনো কোন ভিডিও বা ছবি এখানে আপলোড করা যাবে না। কোনভাবেই ছবি বা ভিডিও ‘সেভ’ করে রাখা যাবে না। যেসব রাজ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে, কেবলমাত্র সেখানেই এই অ্যাপটি কার্যকর থাকবে। কোন ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট রাজ্য থেকে বাইরে গেলে এই অ্যাপটি আর কাজ করবে না।
    নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন বিষয়ে এতদিন অভিযোগগুলি তাৎক্ষনিকভাবে নিষ্পত্তির কোন ব্যবস্হা না থাকায় নিয়ম লঙ্ঘনকারীরা নির্বাচন কর্তৃপক্ষের চোখ এড়িয়ে যেতে পারতো। এছাড়া উপযুক্ত প্রমাণের অভাবেও এই ধরনের অভিযোগ যাচাই করা সম্ভব ছিল না। অন্যদিকে ঘটনাস্হলের ভৌগলিক অবস্হান যথাযথভাবে নির্নীত না হওয়ায় আইন লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্হা গ্রহণে অসুবিধা হত। নতুন এই অ্যাপটি চালু হওয়ার ফলে আচরণবিধি লঙ্ঘন বিষয়ে নজরদারি চালানোর ক্ষেত্রে ত্রুটিগুলি দুর করা সম্ভব হবে এবং এর ফলে একটি দ্রুত গতির অভিযোগ গ্রহণ এবং নিষ্পত্তি ব্যবস্হা কার্যকর হবে।
 


 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.