Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
চড়িলাম-এ ব্যতিক্রমধর্মী সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ' বিজয় পরব, রক্তদানে উপকৃত হন দাতা এবং গ্রহিতা উভয়ইঃ বললেন উপ মুখ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী
By Our Correspondent, 04/01/2019, Charilam

ত্রিপুরা ওয়ার্কিং জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন বিশালগড় মহকুমা কমিটির সার্বিক সহযোগিতায়   শুক্রবার দক্ষিণ চড়িলাম গ্রাম পঞ্চায়েতের ৪ নং কলোনিতে স্থানীয় গ্রামবাসীদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হল ব্যতিক্রমধর্মী একটি সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ' বিজয় পরব '। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন রাজ্যের উপ মুখ্যমন্ত্রী যীষ্ণু দেববর্মণ ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী সুদীপ রায় বর্মণ৷ এছাড়া উপস্থিত ছিলেন সিপাহিজলার অতিরিক্ত জেলাশাসক এস সি দাস, সিএমও চিতন দেববর্মা, সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক বিংকি সাহা, ত্রিপুরা ওয়ার্কিং জার্নালিস্টস এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক দেবাশিস মজুমদার৷ সভাপতিত্ব করেন বিনোদ বিহারী ভৌমিক৷ এ উপলক্ষে আয়োজন করা হয়েছিল একটি স্বেচ্ছা রক্তদান শিবির ও এইডস সচেতনতা শিবির৷ যেখানে ৩০ জন স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন এবং শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে এইচআইভি পরীক্ষা করান৷

টিডব্লিউজেএ”র বিচারে এই গ্রামটি এ বছর বিশালগড় মহকুমা ভিত্তিক সেরা গ্রামীণ দুর্গা পূজার পুরস্কার লাভ করেছিল।  মূলতঃ এইজন্যই আয়োজন করা হয়েছিল এই অনুষ্ঠানটির৷ উদ্যোক্তাদের এই উদ্যোগ দেখে উপ মুখ্যমন্ত্রী তথা এলাকার বিধায়ক যীষ্ণু দেববর্মা বলেন- এই ধরণের অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে দেখে আমি খুবই আনন্দিত৷ তিনি বলেন- রক্ত তৈরি করতে পারে না মানুষ৷ তাই রক্তদানের মাধ্যমেই একজন অসুস্থ মানুষকে সুস্থ করে তোলা যায়৷ এই রক্তদানে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান রাখেন তিনি৷ রক্তদানের মাহাত্ম এবং প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী সুদীপ রায় বর্মণ৷ তিনি বলেন, রক্তদানের মাধ্যমে দুইভাবেই উপকার হয়৷ যিনি দান করেন এবং যিনি দান গ্রহণ করেন উভয়েই উপকৃত হয়ে থাকেন৷ রক্তদান কর্মসূচীকে সার্বজনীন করে তুলতে আহ্বান রাখেন তিনি৷ পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি রাজ্যের সাংবাদিকরা যে প্রত্যক্ষভাবে নানাবিধ সমাজসেবা মূলক দায়িত্বপালনেও তৎপর রয়েছে তা এদিন তুলে ধরেন ত্রিপুরা ওয়ার্কিং জার্নালিস্টস এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক দেবাশিস মজুমদার৷

উপস্থিত দুই মন্ত্রীর হাত ধরে গ্রামের প্রবীণ নাগরিকদের সম্বর্ধনার পাশাপাশি স্বেচ্ছা রক্তদান , এইডস সচেতনতা শিবির , গ্রামের দুঃস্থ মানুষদের শীতবস্ত্র প্রদান করা হয়৷ দুপুরে গণভোজ আর রাতে বাউল গানের উৎসব মাতিয়ে দিয়েছিল এদিন গোটা গ্রামকে৷ এ উপলক্ষে এদিন দক্ষিণ চড়িলাম গ্রামের মানুষদের মাঝে উৎসাহ ছিল তুঙ্গে৷ গ্রামীণ একতা যে কোন একটি গ্রামকে ও গ্রামের মানুষদের মাঝে কতটা আন্তঃরিকতা গড়ে তোলে তার একটা নজির এদিন তৈরি হলো বলে বক্তারা উল্লেখ করেন৷

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.