Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
ছ’দিনের মধ্যে ক্ষমা চাইতে হবে রাহুলকে, ‘চৌকিদার’ মামলায় জানাল সুপ্রিম কোর্ট
Burue Report, 30/04/2019, New Delhi

নতুন করে হলফনামা জমা দিতে চার সপ্তাহ সময় চেয়েছিলেন রাহুলের আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি। কিন্তু তাতে সায় দেয়নি শীর্ষ আদালত। বরং আগামী ৬ মে-র মধ্যে হলফনামা জমা দিতে বলা হয়েছে। তবে সেটি গৃহীত হবে কি না তা হলফনামা হাতে পাওয়ার পরই সিদ্ধান্ত নেবে আদালত।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকে ফাঁস হয়ে যাওয়া নথিপত্রের ভিত্তিতে রাফাল মামলা লড়া যাবে বলে সম্প্রতি জানায় শীর্ষ আদালত। তার পরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করতে গিয়ে  বিতর্ক বাধান রাহুল গাঁধী। সুপ্রিম কোর্টও নরেন্দ্র মোদীকে চোর বলেছে বলে মন্তব্য করে বসেন। যা নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করেন বিজেপি নেত্রী মীনাক্ষী লেখি। বিষয়টি নিয়ে ব্যাখ্যা চাইলে শীর্ষ আদালতে ২২ পাতার হলফনামা জমা দেন রাহুল। তাতে তিনি জানান, ‘‘কোনও আদালতই এমন মন্তব্য করবে না। দুর্ভাগ্যবশত সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ এবং নির্বাচনী প্রচারের মধ্যে আমার করা মন্তব্য মিলেমিশে গিয়েছে, যা আমি একেবারেই বলতে চাইনি।এই মিশেলের জন্য আমি দুঃখিত।’’

মঙ্গলবার মীনাক্ষী লেখির দায়ের করা ওই মামলার শুনানি ছিল প্রধান বিচারপতি বিচারপতি সঞ্জয় কিষাণ কউল এবং বিচারপতি কেএম জোসেফের ডিভিশন বেঞ্চে। সেখানে রাহুলের আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি জানান, হলফনামায় ইতিমধ্যেই ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন তাঁর মক্কেল। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের সঙ্গে চৌকিদার মন্তব্য জুড়ে ফেলার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন। ডিকশনারিতে দুঃপ্রকাশের অর্থ ক্ষমা চাওয়া বলেও সাফাই দেন সিঙ্ঘভি। কিন্তু তাঁর যুক্তি মানেননি বিচারপতিরা। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন, “২২ পাতা জুড়ে দুঃখপ্রকাশ তো হল, কিন্তু ক্ষমা কোথায় চাওয়া হল?” কংগ্রেস সভাপতির তরফে নয়া হলফনামা দায়ের করা হবে বলে জানান সিঙ্ঘভি।

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.