Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
পঞ্চায়েত ভোট: শেষ হলো মনোনয়ন জমা নেওয়ার কাজ, রেকর্ড সংখ্যক আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় জয়ী হতে চলেছে বিজেপি, মনোনয়ন জমা পড়েছে ৭৪৮৮টি
By Our Correspondent, 08/07/2019, Agartala
 

সোমবার শেষ হলো পঞ্চায়েত ভোটের মনোনয়ন জমা নেওয়ার প্রক্রিয়া৷ শেষ দিন পর্যন্ত গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট মনোনয়ন পত্র জমা পড়েছে ৭৪৮৮টি৷ এর মধ্যে সর্বাধিক ছয় হাজারেরও বেশি মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন শাসক দল বিজেপির প্রার্থীরা৷ বিরোধীদের মধ্যে তুলনায় এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস৷ যদিও সব দলের কর্মীদের বাধা দানের কারণে নয়ন পত্র জমা দেওয়া সম্ভব হয়নি বলে অভিযোগ করেছে  বামফ্রন্ট কমিটি৷


রাজ্যের ৫৯১টি পঞ্চায়েতের ৬১১১টি আসনের জন্য নয়ন পত্র জমা নেওয়ার কাজ শুরু হয়েছিল গত  ১ জুলাই থেকে৷ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ৮  জুলাই শেষ হয়েছে মনোনয়নপত্র জমা নেয়ার কাজ৷ বেসরকারি সূত্রে জানা গেছে, ৬১১১টি আসনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ৭৪৮৮টি৷ এর মধ্যে বিজিবি প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ৬১২৭টি৷ বিরোধীদের মধ্যে কংগ্রেসের প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ৭২৭টি আসনে৷

মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার তালিকায়  তৃতীয় স্থানে রয়েছে সিপিএম৷ এই দলের পক্ষ থেকে মোট ৪০৮টি মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া হয়েছে৷ ফ্রন্ট সঙ্গী সিপিআই দিয়েছে চারটি আসনে৷ এছাড়া, আইপিএফটি ৪৮টি, নির্দল ১৭২টি ও অন্যান্যরা ২টি আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন৷


মোট ৬১১১টি আসনের মধ্যে বিজেপি প্রার্থীরা ৬১২৭টি আসনে প্রার্থী দিতে সমর্থ হলেও সিপিএম কংগ্রেস এবং অন্যান্যরা মিলে মোট মনোনয়নপত্র জমা দিতে পেরেছে মাত্র ১৩৬১টি৷ ফলে ৪৭৬৬টি আসনেই যে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় বিজেপি প্রার্থীরা জয়ী হতে চলেছেন তা বলার অপেক্ষা রাখে না৷


অন্যদিকে পঞ্চায়েত সমিতিতে মোট মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ৬১২টি৷ আমাদের পৃথিবী প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ৪১৯টি, সিপিএম ৯৩টিতে, কংগ্রেস ৭৪টিতে, সি পি আই ২টিতে, আইপিএফটি ২টিতে, নির্দল ১৫টিতে ও অন্যান্যরা ৭টিতে৷ ফলে পঞ্চায়েত সমিতির বহু আসোনি ও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হতে চলেছেন বিজেপির প্রার্থীরা৷
রাজ্যের ৮টি জিলা পরিষদের জন্য মোট মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ৩০৫টি৷ এর মধ্যে বিজেপি প্রার্থীরা দিয়েছেন ১১৭ টি তে৷ তুলনামূলকভাবে জিলা পরিষদে ভালো অবস্থানে রয়েছে সিপিএম৷ এখানে ৯৩টি প্রার্থী দিয়েছে দল৷ কংগ্রেস তৃতীয় স্থানে থেকে ৮১টি প্রার্থী দিতে সক্ষম হয়েছে৷ ৭ জন করে মোট ১৪ জন প্রার্থী রয়েছেন নির্দল এবং অন্যান্যরা৷
রাজ্য নির্বাচন দপ্তর থেকে এ সংক্রান্ত সঠিক হিসাব এদিন পাওয়া যায়নি৷ তবে বেসরকারি সূত্রে পাওয়া এই তত্ত্বের নিরিখে বলা যায় যে তৃণমূল স্তরে বিরোধীরা প্রতিদ্বন্দ্বীতার  জন্য প্রার্থী খুঁজে পায়নি৷ যার  ফলশ্রুতিতে সাড়ে চার হাজারেরও বেশি গ্রাম পঞ্চায়েতের আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় জয়ী হতে চলেছে শাসক দল বিজেপি৷
ত্রিপুরার বামফ্রন্ট কমিটি অবশ্য দাবি করেছে, বিজেপি কর্মীরা ব্লক অফিস ঘেরাো করে রেখেছিল ৷ এছাড়া বক্সনগর সাঁতচাদ ব্লকে প্রার্থীদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে৷ বামফ্রন্টের প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন এবং যারা প্রস্তাবক ছিলেন তাদের বাড়িতে হামলা চালানো হচ্ছে৷ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে বলে বামফ্রন্ট কমিটির অভিযোগ৷ এই মর্মে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানানো হলেও কমিশন কোন প্রকার কার্যকরী ব্যবস্থা নেয়নি বলে বামফ্রন্ট কমিটির অভিযোগ৷ প্রার্থী ও প্রস্তাবকদের  নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য বামফ্রন্টের পক্ষ থেকে রাজ্য নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের কাছে দাবি জানানো হয়েছে৷

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.