Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
রেল খাতে উত্তর পূর্বাঞ্চলের জন্য গত পাঁচ বছরে ২৫,৬৮৪.১৭ কোটি টাকার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, লোকসভায় জানিয়েছেন ড. জীতেন্দ্র সিং
Burue Report, 11/07/2019, New Delhi

উত্তর পূর্বাঞ্চলের পরিকাঠামোর উন্নয়নের জন্য তথা সড়ক ও রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্প্রসারণ করতে এবং বিমানবন্দর, জলপথ, টেলিকম, বিদ্যুৎ ক্ষেত্রের উন্নয়নের জন্য একাধিক প্রকল্প হাতে নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ শুধুমাত্র রেল খাতে এই অঞ্চলের জন্য গত পাঁচ বছরে ২৫,৬৮৪.১৭ কোটি টাকার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে৷ আাজ লোকসভায় একটি লিখিত উত্তরে এই তথ্য জানিয়েছেন ডেভলপমেন্ট অব নর্থ ইস্টার্ন রিজিওন(ডোনার)এর স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত রাষ্ট্রমন্ত্রী, তথা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী, পার্সোনাল, পাবলিক গ্রিভেন্স, এটমিক এনার্জি এন্ড স্পেস দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী ড. জীতেন্দ্র সিং৷


ড. সিং জানিয়েছেন, স্পেশাল এক্সিলারেটেড রোড ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রামের (এসএআরডিপি-এনই) অধীনে উত্তর পূর্বাঞ্চলের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য ৬৪১৮ কিলোমিটার সড়কের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে ৫২৭৩ কিলোমিটার সড়কের জন্য বরাদ্দ দিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ এই খাতে ব্যয় করা হবে ৫৭,৫১৮ কোটি টাকা৷ বরাদ্দকৃত ৫২৭৩ কিলোমিটারের মধ্যে ৩১ মার্চ ২০১৯ পর্যন্ত ৩০২৯ কিলোমিটার সড়কের কাজ সম্পূর্ণ হয়ে গেছে৷ এরজন্য ব্যয় হয়েছে ৩০,৩১৫ কোটি টাকা৷


রেল যোগাযোগ এবং পরিকাঠামোর উন্নয়নের জন্য উত্তর পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিতে যে সমস্ত প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে সেগুলির বিবরণ দিতে গিয়ে তিনি জানান- জিরিবাম-ইম্ফল, ডিমাপুর (ধানসিঁড়ি)- জুবজা(কোহিমা), আগরতলা-সাব্রুম, তেতেলিয়া-বায়রনিহাট, বায়রনিহাট-শিলং, ভৈরবী-সাইরাং, মুরুকংসেলাক-পাসিঘাট, আগরতলা(ভারত)- আখাউড়া(বাংলাদেশ) সহ বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে৷ গত ৫ বছরে এই অঞ্চলের নতুন লাইন, গেজ পরিবর্তন এবং ডাবলিং এর জন্য কেন্দ্রীয় সরকার ২০১৪-১৫ থেকে ২০১৮-১৯ সাল পর্যন্ত মোট ২৫৬৮৪.১৭ কোটি টাকার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে এবং এখন পর্যন্ত ব্যয় করা হয়েছে ২২,৫৮৫.৩৭ কোটি টাকা৷


এই অঞ্চলের বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থার আধুনিকীকরণ ও উন্নয়ন প্রসঙ্গে তিনি জানান- গুয়াহাটি, ইম্ফল, আগরতলা, ডিব্রগড়, ডিমাপুর, তেজু সহ বিভিন্ন বিমানবন্দরের আধুনিকীকরণের কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে৷ ইটানগরের হলোংগি’তে ৬৪৫.৬৩ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি গ্রীণফিল্ড এয়ারপোর্ট নির্মাণের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে৷ সিকিমের পাকোয়াং’য়ে ৫৫৩.৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি গ্রিণফিল্ড এয়ারপোর্ট নির্মাণ করা হয়েছে যা ইতোমধ্যে চালু হয়ে গেছে৷
উত্তর পূর্বাঞ্চলের ১৯টি নতুন জলপথকে ন্যাশনাল ওয়াটারওয়েজ(এনডব্লিউ) তথা জাতীয় জলপথ হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে৷ গত তিন বছরে জাতীয় জলপথ-২(ব্রম্মপুত্র নদী) এবং এনডব্লিউ-১৮(বরাক নদী) এবং ১৮টি নতুন জলপথ নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ২৭০.৫০ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে৷
টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য পঞ্চায়েতগুলিকে ব্রডব্যান্ড পরিষেবার সাথে যুক্ত করতে দুই পর্যায়ে ৬৪৪.৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ১১,৯৫৬টি গ্রাম পঞ্চায়েতকে ভারত নেট প্রকল্পে যুক্ত করার কাজ চলছে৷  মন্ত্রী জানিয়েছেন, কম্প্রিহেনসিভ টেলিকম ডেভলপমেন্ট প্রজেক্টে (সিটিডিপি)৮৬২১টি গ্রামে ৬৬৭৩টি মোবাইল টাওয়ার এবং জাতীয় সড়কের পাশে ৩২১টি মোবাইল টাওয়ার স্থাপন করা হচ্ছে৷


বিদ্যুৎ পরিবাহী ও বিতরণ ক্ষেত্রের উন্নয়নের জন্য কম্প্রিহেনসিভ স্কীম ফর স্ট্র্যাংথেনিং অব ট্র্যান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম ইন অরুণাচল প্রদেশ এন্ড সিকিম (সিএসএসটিএন্ডডিএস) প্রকল্পে ৪৭৫৪.৪২ কোটি টাকা এবং নর্থ ইস্টার্ণ রিজিওন পাওয়ার সিস্টেম ইমপ্রোভমেন্ট প্রজেক্ট (এনইআরপিএসআইপি) প্রকল্পে মেঘালয়, মিজোরাম, মণিপুর, নাগাল্যান্ড, ত্রিপুরা এবং অসমের জন্য ৫১১১.৩৩ কোটি টাকার প্রকল্পের কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে৷
এছাড়াও, ডোনার মন্ত্রকের পক্ষ থেকেও এনএলসিপিআর-স্টেট, নর্থ ইস্ট রোড সেক্টর ডেভলপমেন্ট স্কীম (এনএআরসেডিস), নর্থ ইস্ট স্পেশাল ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভলপমেন্ট স্কীম (এনইএসআইডিএস) এবং স্কীম অব নর্থ ইস্টার্ণ কাউন্সিল (এনইসি)’ প্রকল্পে এই অঞ্চলের পরিকাঠামোগত অনেক শূণ্যতা পূরণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি৷

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.