Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
পাকিস্তানের নানকানা সাহিবে হামলা, তীব্র নিন্দা মমতা-অধীরের
Burue Report, 09/01/2020, New Delhi

ভিতরে আটকে একাধিক পুণ্যার্থী। বাইরে চলছে শিখ-বিরোধী স্লোগান এবং তার সঙ্গে সঙ্গে ছোড়া হচ্ছে ইট। শুক্রবার ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়েছে পাকিস্তানের নানকানা সাহিব গুরুদ্বারের এই ভিডিয়ো। এক শিখ তরুণী এবং মুসলিম তরুণের বিয়ে ঘিরে এভাবেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পাকিস্তানের এই গুরুদ্বার। নানকানা সাহিব গুরুদ্বারের ভিতরে আটকে পড়া পুণ্যার্থীদের উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছেন অকালি নেতারা। গোটা ঘটনায় ক্ষুব্ধ পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে 'ব্যবস্থা নিতে' আর্জি জানিয়েছেন। এবার ইস্যুতে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

'পাকিস্তানের নানকানা সাহিব গুরুদ্বারে হামলার ঘটনার নিন্দা করছি আমরা। এটা কখনই মেনে নেওয়া যায় না। মানবতাই সবার ঊর্ধ্বে।' টুইট করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। ঘটনার নিন্দা করেছে লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরীও। 'নানকানা সাহিব গুরুদ্বারে পাকিস্তানের ধর্মান্ধদের হামলা অত্যন্ত নিন্দনীয় ঘটনা। আটকে পড়া পুণ্যার্থীদের উদ্ধারে সরকারের সবরকম ব্যবস্থা করা উচিত।' এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে দিল্লির রাস্তায় আজ মিছিল করেন কংগ্রেস সমর্থকরা।

মহম্মদ হাসান এবং জগজিৎ কাউর - যে তরুণ-তরুণীর বিয়ে ঘিরে এই বিবাদ, তাঁরা দু'জনেই এই এলাকার বাসিন্দা। মেয়েটির পরিবার নানকানা সাহিব গুরুদ্বারের সঙ্গে যুক্ত। তাঁদের অভিযোগ, জগজিৎ-কে অপহরণ করে নিয়ে গিয়েছেন হাসান। জোর করে ধর্মান্তর করিয়ে বিয়ে করেছে। উল্টোদিকে হাসানের পরিবারের দাবি, জগজিৎ স্বেচ্ছায় বিয়ে করে চলে এসেছেন। স্বেচ্ছায় ইসলাম গ্রহণ করেছেন তিনি। বিবাদ তুঙ্গে ওঠে যখন মেয়েকে ফেরত চায় শিখ পরিবার। অভিযোগ, জগজিৎ-কে ফেরাতে রাজি না হওয়ায় হাসানকে বেধড়ক মারধর করে মেয়েটির পরিবার।

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.