Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
৪.৪২ লক্ষ প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র কৃষকদের বিমার আওতায় নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য
By Our Correspondent, 20/05/2020, Agartala

সাড়ে চার লক্ষ প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র চাষীদের বিমার আওতায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য সরকার৷ এরজন্য কৃষকদের দিতে হবে কানি প্রতি মাত্র ১০ টাকা৷ তবে সোয়া ৬ কানির বেশি জমি রয়েছে এমন কৃষকদের এরজন্য দিতে হবে কানি প্রতি ১০০ টাকা৷ যদিও এই দুই ক্যাটাগরিতে রাজ্য সরকারকে দিতে হবে যথাক্রমে ২১০.৯৩ টাকা ও ১২০ টাকা৷ এরফলে সরকারের কোষাগার থেকে ব্যয় হবে বছরে প্রায় ১৫ কোটি টাকারও বেশি৷ বৃধবার মহাকরণে সাংবাদিক সম্মেলনে এই তথ্য জানিয়েছেন মন্তি্রসভার মুখপাত্র রতন লাল নাথ৷ তিনি জানান- রাজ্য সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২১,৫০০ হেক্টর উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ কৃষি জমিকে বিমার আওতায় নিয়ে আসে৷ এক্ষেত্রে বিমার টাকা সবটাই রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বহন করা হতো৷ এরফলে রাজ্যের সাড়ে ৩ হাজার কৃষক উপকৃত হয়েছিলেন৷ এখন সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের প্রায় সমস্ত কৃষকদেরকেই এই বিমার আওতায় নিয়ে আসার জন্য৷

রাজ্যের মোট কৃষকের সংখ্যা রয়েছেন সোয়া ৫ লক্ষের মত৷ এরমধ্যে প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র কৃষক রয়েছেন ৪ লক্ষ ৪২ হাজার৷ আড়াই কানি পর্যন্ত জমি রয়েছে এমন কৃষকের সংখ্যা রয়েছে ৩ লক্ষ ৯০ হাজার ও এর বেশি অথছ সোয়া ৬ কানির কম জমি রয়েছে এমন কৃষকের সংখ্যা হলো ১ লক্ষ ৩০ হাজার৷ রাজ্য সরকারের বিমা প্রকল্পে এই দুই শ্রেণীর কৃষকরাই সুবিধা পাবেন৷ এক্ষেত্রে তিনটা ফসলের ক্ষেত্রে ১ কানি জমির জন্য কৃষকদের দিতে হবে ১০ টাকা করে৷ এক্ষেত্রে রাজ্য সরকার এক কানির জন্য দেবে আরও ২১০ টাকা ৯৩ পয়সা৷ দুই কানি হলে এই টাকার পরিমাণ দ্বিগুণ হয়ে যাবে৷ অন্যদিকে আড়াই থেকে সোয়া ছয় কানি পর্যন্ত জমি রয়েছে এমন কৃষকদেরকে দিতে হবে প্রতি কানিতে ১০০ টাকা করে এবং এর সাথে রাজ্য সরকার দেবে আরও ১২০ টাকা৷ এই দুটি ক্যাটাগরিতে জমির বিমা করাতে সরকারের কোষাগার থেকে ব্যয় হবে ১৪ কোটি ৭৭ লক্ষ টাকা বছরে৷

মন্ত্রী রতন লাল নাথ জানান- দুর্যোগের কারণে যদি কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হন সেক্ষেত্রে যাতে তাদেরকে ক্ষতির সম্মুখীন হতে না হয় তারজন্যই সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ এতে বড় অংশের কৃষকরাই লাভবান হবেন৷ বিমার দায়িত্ব দেওয়া হবে কেন্দ্রীয় সরকারের স্বীকৃত ১৮ টি সংস্থার মধ্যে দুটিকে৷ আউশ ও আমন এই দুটি ফসলের জন্য বিমা করাবে এইচডিএফসি এগ্রো প্রাইভেট ও বোরো চাষের জন্য অন্য আরেকটি সংস্থা৷ এ ব্যাপারে সকলকে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন মন্ত্রী শ্রী নাথ৷

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.