Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
ফের বৈঠকে মোদী-ট্রাম্প, পরস্পরের ভূয়সী প্রশংসা ভারত ও আমেরিকার, চিনকে ঘিরতে চার দেশের সম্মিলিত জোট
Burue Report, 13/11/2017, Manila

আসিয়ান শিখর সম্মেলনে এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলে চিনকে রুখতে এবার উঠে এলো নতুন জোট। আমেরিকা, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, ভারত— এই চার দেশ জোট গঠনের পথে হাঁটল। চিনকে সব দিকে থেকে ঘিরে রাখতে ভারত মহাসাগর থেকে প্রশান্ত মহাসাগর পর্যন্ত ছড়িয়ে থাকা বিশাল  এলাকায় এই চার দেশ একসঙ্গে কাজ করবে, এমন কথা শোনা যাচ্ছিল বহু দিন ধরেই। চার দেশ পরস্পরের সঙ্গে যোগাযোগও বাড়াচ্ছিল নানা ক্ষেত্রে। কিন্তু ‘চতুর্ভুজ’ গঠনের স্পষ্ট কোনও পদক্ষেপ ছিল না। ফিলিপিন্সের রাজধানী ম্যানিলায় এ বার সেই স্পষ্ট পদক্ষেপটিই করা হল। চিনের অস্বস্তি বহুগুণ বাড়িয়ে আসিয়ান শিখর সম্মেলনের ফাঁকে আলাদা বৈঠক করলেন ভারত, অস্ট্রেলিয়া, জাপান এবং আমেরিকার বিদেশ মন্ত্রকের কর্তারা।
ম্যানিলায় চতুর্ভুজ বৈঠকটি হয়েছে রবিবার। স্বাভাবিক ভাবেই গোটা বিশ্বের নজর কেড়েছে আমেরিকা-জাপান-অস্ট্রেলিয়া-ভারতের এই সুস্পষ্ট অক্ষ। ভারতের তরফে বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন বিদেশ মন্ত্রকের পূর্ব এশিয়া সংক্রান্ত বিষয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম সচিব প্রণয় ভার্মা এবং দক্ষিণ এশিয়া সংক্রান্ত বিষয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম সচিব বিনয় কুমার। আমেরিকার তরফে ছিলেন প্রখ্যাত কূটনীতিক অ্যালিস ওয়েলস এবং জাপানের তরফে বৈদেশিক নীতি বিভাগের উপমন্ত্রী সাতোশি সুজুকি।
নতুন আন্তর্জাতিক জোটের ইঙ্গিত দিয়ে রবিবারই ম্যানিলায় জাপান-অস্ট্রেলিয়া-আমেরিকার বিদেশ মন্ত্রকের কর্তাদের সঙ্গে যৌথ বৈঠকে বসেছিলেন ভারতীয় প্রতিনিধিরা।
সোমবার আসিয়ান শিখর সম্মেলনের ফাঁকে আরও এক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করল ভারত। বৈঠক হল ভারত এবং আমেরিকার মধ্যে। তবে এ বার আর কোনও নির্দিষ্ট মন্ত্রকের কর্তারা নন, পরস্পরের মুখোমুখি হলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দুই নেতাই ইঙ্গিত দিলেন, আরও বাড়তে চলেছে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা। দুই নেতাই পরস্পরের ভূয়সী প্রশংসাও করলেন।
আসিয়ান শিখর সম্মেলনে যোগ দিতে গিয়ে মোদী যে হোটেলে উঠেছেন, সেই ম্যারিয়ট থেকে সোফিতেল মাত্র পাঁচ মিনিটের দূরত্বে। বৈঠকে মোদী নিজের প্রারম্ভিক বিবৃতিতে বলেন, ‘‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে আবার বৈঠকে বসতে পেরে আমি খুশি। ভারত-মার্কিন সম্পর্ক ক্রমশ প্রশস্ত এবং গভীরতর হচ্ছে এবং আপনারাও বুঝতে পারছেন যে, শুধুমাত্র ভারতের স্বার্থ চরিতার্থ করার মধ্যে আর সীমাবদ্ধ নেই এই সম্পর্ক, এশিয়ার ভবিষ্যৎ এবং গোটা মানবজাতির কল্যাণের জন্যই এখন ভারত-মার্কিন সম্পর্ক কাজ করতে প্রস্তুত।’’ মোদী আরও বলেন, ‘‘সাম্প্রতিক কালে ভারত সম্পর্কে কথা বলার সুযোগ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যেখানেই পেয়েছেন, সেখানেই তিনি ভারতের বিষয়ে আশবাদী এবং কথা বলেছেন এবং উচ্চ ধারণা প্রকাশ করেছেন। আমিও অঙ্গীকার করছি, ভারতের কাছ থেকে আমেরিকার এবং গোটা পৃথিবীর যা প্রত্যাশা, তা পূরণ করতে ভারত সব রকম চেষ্টা চালাবে।’’
মোদীর এই আমেরিকা-প্রশস্তি বৃথা যায়নি। ট্রাম্পও নিজের বিবৃতিতে মোদীর তথা ভারতের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন এ দিন। পিটিআই সূত্রের খবর, ট্রাম্প বলেছেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এখানে রয়েছেন। এর আগে হোয়াইট হাউসে আমাদের দেখা হয়েছিল। তিনি আমাদের বন্ধু হয়ে উঠেছেন। তিনি খুব ভাল কাজ করছেন। অনেক সমস্যার সমাধান তিনি করেছেন এবং আমরা একসঙ্গেই কাজ করব।’’
নরেন্দ্র মোদী এবং ডোনাল্ড ট্রাম্পের বৈঠকে নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে বিশদে আলোচনা হয়েছে বলে খবর। দু’দেশের মধ্যে ব্যবসা আরও বাড়ানোর বিষয়েও মোদী-ট্রাম্প আলোচনা করেছেন বলে জানা গিয়েছে।

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.