Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
অপহরণের আট দিনের মধ্যে অক্ষত অবস্থায় বাড়ি ফিরে এলেন তৈদু থেকে অপহৃত চার ব্যাঙ্ক কর্মী
By Our Correspondent, 01/12/2017, Agartala
 

সাতদিন পর গোপন ডেরা থেকে ফিরে এসেছেন অপহৃত চার ব্যাঙ্ক কর্মী। এদিন সকালে তারা বাড়ি ফিরে এসেছে। যদিও অপহরণের বিস্তারিত কিছু জানা যাচ্ছে না।
গত ২৪ নভেম্বর তৈদু থেকে বাড়ি ফেরার পথে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন ব্যাঙ্ক ম্যানেজার সহ ওই ব্যাঙ্কের চার কর্মী। এরপর থেকে তৈদু এবং অম্পি এই দুটি ব্যাঙ্কের শাখা অনিদৃষ্ট কালের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল।
আট দিনের মাথায় শুক্রবার সকালে গাড়ি করে বাড়ি ফেরেন সকলেই। অপহৃতরা সকলেই সুস্থ বলে দাবি করা হয়েছে। অপহরণের দুই দিন পর আমবাসা থেকে গাড়িটিকে উদ্ধার করা হয়েছিল। একই সাথে একটি বাইকও উদ্ধার করা হয়েছিল।
উল্লেখ্য, প্রতিদিনের ন্যায় ২৪ নভেম্বর বিকেল চারটা নাগাদ ব্যাঙ্কের অন্য তিন সহকর্মীকে নিয়ে তৈদু গ্রামীণ ব্যাঙ্কের শাখা থেকে টিআার ০১-ইউ-০২৩০ নং গাড়ি করে বাড়ি রওয়ানা হয়েছিলেন ব্যাঙ্ক ম্যানেজার তনুময় ভট্রাচার্য৷ তাঁর বাড়ি রাণীরবাজারে৷ সাথে ছিলেন সহকারি ম্যানেজার রক্তিম ভট্রাচার্য ও ক্যাশিয়ার সুজিত দে৷ অন্যদিকে বাইকে করে রওয়ানা হয়েছিলেন ব্যাংকেরই কর্মী সুশান্ত দেববর্মা৷ তার বাড়ি তেলিয়ামুড়ায়৷ খাসিয়ামঙ্গল এলাকায় আসা মাত্র কয়েকজন যুবক গাড়িটি থামিয়ে চালক সমেত চারজনকেই অপহরণ করে৷ সন্ধ্যা রাতেই এই ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি নজরে আসে শনিবার সকালে৷

দুষ্কৃতিকারীদের তরফে ৫০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়েছিল বলে জানা গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলেও ততক্ষণে অপহৃতদের নিয়ে দুষ্কৃতকারীরা  নিরাপদ আস্থানায় পৌঁছে যায়৷ অপহরনকারীদের তরফে ৪৮ ঘন্টা সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছিল।  কিন্তু অপহৃতদের উদ্ধার করতে পুলিশ তথাকথিত তল্লাসী অভিযান চালালেও তা আদৌ কতটা হয়েছিল তা ইতোমধ্যেই স্পষ্ট হয়ে গেছে। কেননা তৈদু থেকে তাদের অপহরণ করা হয়েছিল সেখান দিয়েই তাদের ভোর ৬টা নাগাদ ছেড়ে দেয়া হয়েছে। শুক্রবার সকালে তৈদুর সালকা জঙ্গল দিয়ে তারা বাড়ি ফিরে এসেছে।

যদিও বাড়ি ফিরেও অপহৃতরা কিছু মুখ খুলছে না। পরিবারের তরফে জানানো হচ্ছে তারা অসুস্থ। কিন্তু এতদূর গাড়ি করে এলেও কথা বলার মত অবস্থায় নেই এমনটা বিশ্বাসযোগ্য মনে হচ্ছে না। এই চার ব্যাঙ্ক কর্মীকে কারা অপহরণ করেছিল, কোথায় রেখেছিল, কিভাবেই বা ফিরলো, মুক্তিপণ বাবদ কত টাকা কাদের মধ্যস্থতায় দেয়া হয়েছিল এসব বিষয়েই রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে।

 

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.