Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
অন্য দেশের ভূখণ্ডে দখলদারি কায়েম করার চেষ্টা করে না ভারত: প্রধানমন্ত্রী
Burue Report, 09/01/2018, New Delhi

চিন ভাবে বার বার সীমান্ত লঙ্ঘন করছে, তা যে ভারত ভাল চোখে দেখছে না, চিনের নাম না করেও তা বেশ স্পষ্ট করেই বুঝিয়ে দিলেন নরেন্দ্র মোদী। মঙ্গলবার বিভিন্ন দেশের আইনসভার ভারতীয় বংশোদ্ভুত সদস্যদের সম্মেলনে এই মন্তব্য করেছেন মোদী। তিনি বলেন, অন্য দেশের ভূখণ্ডে দখলদারি কায়েম করার চেষ্টা ভারত করে না।  যে সব দেশের উন্নয়নে ভারত সহায়তা করে, তাদের কাছ থেকে বিনিময়ে কিছু পাওয়ার কথা ভারত ভাবে না— প্রধানমন্ত্রী এ দিন এমনও বললেন।

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে মহাত্মা গাঁধীর প্রত্যাবর্তনের ১০২তম বার্ষিকী উপলক্ষে দিল্লিতে আয়োজিত হয়েছে ‘পার্সনস অব ইন্ডিয়ান অরিজিন পার্লামেন্টেরিয়ানস’ (পিআইওপি) সম্মেলন। ফ্রান্স, সুইৎজারল্যান্ড, ফিজি, মরিশাস-সহ ২৪টি দেশ থেকে মোট ১৩৪ জন যোগ দিয়েছেন এই সম্মেলনে। তাঁরা প্রত্যেকেই সংশ্লিষ্ট দেশগুলির আইনসভার নির্বাচিত সদস্য।

এই প্রথম বার এমন সম্মেলনের আয়োজন করল ভারত। সেই সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বললেন, ভারত চিরকালই আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে গঠনমূলক ভূমিকা পালন করে এসেছে এবং আজকের পৃথিবীতে কট্টরবাদ ও জঙ্গিপনার যে বাড়বাড়ন্ত, মহাত্মা গাঁধীর দর্শন অহিংসাই তার মোকাবিলা করতে পারে।

‘‘কোনও দেশের প্রতি ভারতের নীতি কী হবে, লাভ-লোকসানের হিসেবের উপরে দাঁড়িয়ে আমরা তা নির্ধারণ করি না। আমরা মানবিক মূল্যবোধের ভিত্তিতে সেই নীতি নির্ধারণ করি।’’ ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ব্যাখ্যা, কোনও দেশের উন্নয়নে সহায়তা করার আগে ভারত এ কথা ভাবে না যে সেই দেশের কাছ থেকে ভারত কী পাবে। সংশ্লিষ্ট দেশটির প্রয়োজনীয়তা এবং অগ্রাধিকার বিচার করেই ভারত সেই দেশের প্রতি নিজের নীতি নির্দিষ্ট করে। তিনি আরও বলেন, ‘‘অন্য কারও সম্পদ শোষণ করার ইচ্ছা আমাদের নেই, অন্য দেশের ভূখণ্ডের দিকেও আমরা নজর দিই না।’’

নাম না করলেও, নরেন্দ্র মোদীর মন্তব্যের লক্ষ্য যে চিনই, সে কথা কূটনৈতিক মহলের কাছে বেশ স্পষ্ট। ২০১৭-র মাঝামাঝি সময়ে ভারত-ভুটান-চিন সীমান্তের ডোকলামে চিন আগ্রাসন দেখানোর চেষ্টা করেছিল। বছরের শেষ দিকে অরুণাচলের ভিতরে ঢুকে তারা রাস্তা তৈরি শুরু করেছিল। এ ছাড়াও লাদাখে এবং উত্তরাখণ্ডেও সীমান্ত লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটিয়েছে চিনা বাহিনী। সে কথা মাথায় রেখেই যে অন্যের ভূখণ্ডে নজর দেওয়া সংক্রান্ত মন্তব্য করেছেন মোদী, সে বিষয়ে কূটনীতিকদের সিংহভাগই একমত।

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.