Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
টিআরপি ও পিজিটি দপ্তর থেকে সঠিক সময়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স না পেয়ে অফিসারকে তালা বন্ধ করলো বিক্ষিপ্ত বেনিফিসিয়ারিরা
By Our Correspondent, 14/05/2018, Shantirbazar

শান্তির বাজার মহকুমার অন্তরগত লেনিন কলোনী এলাকায় এই অফিসটি অবস্থীত।  গত ২০১৭ অর্থবর্ষে উপজাতি পুরুষ বেনিফিসারীকে কর্মসস্থানের ব্যাবস্থা করেদিতে টি আর পি এবং পি টি জি দপ্তরের উদ্দ্যোগে ড্রাইভিং প্রশিক্ষন দেওয়াহয়।  মোট ৮২ জন বেনিফিসারীকে এই প্রশিক্ষন দেওয়াহয়।  প্রত্যেক বেনিফিসারীকে বলাহয়েছে ট্রেনিং শেষে সাবাইকে সরকারী খরচায় ড্রাইভিং লাইসেন্স করে দেওয়াহবে।  যার ফলে ট্রেনিং শেষে সকলের কাগজ পত্র জমানিয়ে লারনার দিয়েছে।  পরবর্তী সময় বেনিফিসারীরা ড্রাইভিং এর জন্য আবেদনকরে সব কাগজপত্র জমা দিয়েছে কিন্তু কাজের কাজ কিছুইহয়নি। 

বিগত মাসে পোগ্রাম অফিসার সঞ্জীত সরকারের নিকটর বেনিফিসারীরা এই সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি ড্রাইভিং প্রশিক্ষক সংস্থার হয়ে লিখিত দিয়ে সাক্ষী  হিসাবে সইকরেদেন।  পোগ্রা অফিসার সঞ্জীব সরকর লিখিত দেন গত ৩০ - ০৪-২০১৮ সকল বেনিফিসারীকে ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে দেবেন।  উনার এই ধরনের পতিশ্রুতি পেয়ে সকল বেনিফিসরী নিজ নিজ ঘরে চলেযায়।  এতদিন অতিক্রান্ত হবার পরও সঞ্জীব সরকার নিজ দায়িত্ব পালন করতে অক্ষমহন।  যার ফলে সকল বেনিফিসারী আজ দুইটা নাগাদ অফিসে এসে ক্ষুব্ধহয়ে সঞ্জীব বাবুকে তালাবন্ধী করেন।  পূর্বে বাম আমলে মনীন্দ্র রিয়াং এই দপ্তরটি দেখাশুনা করতেন। 

নলছরের বাসিন্দা সঞ্জীব বাবু মনীন্দ্র রিয়াং এর খোবকাছের লোকছিলো।  তিনি হয়তো ভুলেগেছেন এখন বাম আমল শেষ হয়েগেছে।  প্রতিবাদ করার মতো লোক আছেযে তিনি আশাকরতে পারেননি।  এই ঘটনা সম্পর্কে  সংবাদ মাধ্যম সঞ্জীব বাবুর কাছে জানতে চাইলে তিনি মুখে কুলুপেতে নিরব ভূমিকা পালন করেন।  উনার নিরবতার মধ্যদিয়ে উনার ব্যার্থতার পরিচয় দেন তিনি।  এখন সকল বেনিফিসারীর দাবি উনারমত অকরমর্ন অফিসারকে এই অফিস থেকে সরানোহোক।  কারন উনার মত বাম মার্কা অফিসার শান্তির বাজার থাকলে উপজাতিদের উন্নয়ন স্তব্ধ হয়ে পরবে।  সকলের একটাই দাবি উনাকে সরিয়ে নতুন অফিসার নিয়োগকরাহোক আর বিগত দিনের উন্নয়নের নামে যে সকল সরকারী টাকা হাফিস করেছে তার হিসাব চাওয়া হোক। 

সকলে চাইছে বর্তমান রাজ্যসরকার এই বিষয়ে সঠিক নজর দেন।  তাদের উন্নয়নের স্বার্থে অতিশিঘ্রই ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করাহোক।  দীর্ঘ ৪ ঘন্টা তালাবন্ধী থাকার পর শান্তির বাজার আরক্ষা দপ্তরের কর্মীরা  এসে পোগ্রাম অফিসারকে তালামুক্ত করেন।  এখন দেখার বিষয় প্রসাশন এই ব্যাপারে কি প্রকার পদক্ষেপ গ্রহন করেন।

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.