Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
দিল্লির দরবারে বাপ্টু, সভাপতি রাহুল গান্ধীর সাক্ষাৎপ্রার্থী
By Our Correspondent, 09/08/2018, Agartala

দল বিরোধী কাজের অভিযোগ এনে ত্রিপুরা প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির সাধারণ সম্পাদক বাপ্টু চক্রবর্তীকে দল থেকে বহিষ্কারের ঘটনায় এবার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বীরজিৎ সিনহাকে অপসারনের দাবি উঠেছে। ত্রিপুরার রাজনীতিতে গত বিধানসভা নির্বাচনের পর কংগ্রেস কার্যত অপ্রাসঙ্গিক হয়ে পড়েছিল। একটি আসনও পায়নি দল। কিন্তু দলীয় অন্তর্কোন্দলের জেরে এখন ফের প্রচারে উঠে এসেছে প্রদেশ কংগ্রেস।

এদিকে বর্তমানে বাপ্টু চক্রবর্তী এবং কংগ্রেসের আরও কয়েকজন নেতা দিল্লিতে অবস্থান করছেন। দল থেকে বহিষ্কারের ঘটনায় যুব নেতা বাপ্টু চক্রবর্তীর সংক্ষিপ্ত প্রতিক্রিয়া, এই বহিষ্কারের নির্দেশ সম্পূর্ণভাবে অনৈতিক, অমানবিক এবং দলের গঠনতন্ত্র বিরোধী। তিনি বলেন, দলের একজন সম্পাদক আরেকজন সম্পাদককে বহিষ্কার করতে পারেন না।
দলের গঠনতন্ত্র সম্পর্কে বীরজিৎ সিনহা অবগত কিনা এ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন কংগ্রেসের একাংশ। সূত্রের খবর, রাজ্য দলে বীরজিৎ সিনহার স্বৈরাচারী মনোভাবের বিষয়ে দিল্লিতে কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্বকে অবহিত করেছেন বাপ্টু চক্রবর্তী। জানা গেছে, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গেও দেখা করার পরিকল্পনা রয়েছে তাঁর। চলতি সপ্তাহেই তা হওয়ার সম্ভাবনা।

বাপ্টু অনুগামী কয়েকজনের কথায়, বিধানসভা নির্বাচনে দলের অর্থ খরচের হিসাব চেয়েই সভাপতি বীরজিৎ সিনহার ন্যাকনজরে পড়েছেন তিনি। অভিযোগ, বিধানসভা নির্বাচনে দলীয় খরচের হিসাব পেশ করতে নারাজ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি।
সভাপতি বীরজিৎ সিনহার নেতৃত্বে বিধানসভা নির্বাচনে লড়াই করে শূন্য হয়েছে কংগ্রেস। ৫৯ আসনে প্রার্থী দিয়ে ৫৮ আসনেই জমানত জব্দ হয়েছে কংগ্রেসের। এই অবস্থায় সংগঠনকে ঘুরে দাঁড় করানোর চেষ্টার বদলে সভাপতি বীরজিৎ সিনহা সংগঠনকে আরও তলানিতে নামানোর কাজ করছেন বলে বিরোধী গোষ্ঠীর অভিযোগ।

দলের একাংশের মতে, প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বদলের আঁচ পেয়েই সভাপতি পদে সম্ভাব্য দাবিদারদের দল থেকে ছাঁটাই করে দেওষ়ার কৌশল নিয়েছে বীরজিৎ শিবির। কংগ্রেস কর্মী বাপ্টু চক্রবর্তীর জনপ্রিয়তা যথেষ্ট সবল। কর্মী-সমর্থকদের পাশে থেকে রাজনীতি করেন বলেই খুব দ্রুত কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সুনজরে এসেছেন চক্রবর্তী।
অনেকের মতে প্রদেশ কংগ্রেসে নতুন সভাপতির দৌড়ে বাপ্টু চক্রবর্তীর পাল্লা ভারী বোঝেই বর্তমান সভাপতি তড়িঘড়ি বহিষ্কারের কৌশল নিয়েছেন। দলের গঠনতন্ত্রও এক্ষেত্রে গুরুত্ব পায়নি।

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.