Facebook Google Plus Twiter YouTube
   
হৃদরোগ প্রতিরোধ করতে পারে চীনাবাদাম, জানেন কি ?
By Our Correspondent, 23/04/2017, Agartala

চর্বি হয়ে যাবার আশঙ্কায় বাদাম থেকে নিজেকে দূরে সড়িয়ে রেখেছেন ? তা হলে জানুন বিশেষজ্ঞরা কি বলছেন !

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক-র মতে , একবেলার খাবারের সঙ্গে এই বাদাম খাওয়ার অভ্যাস করলে হৃদ-সম্পর্কিত রোগ ও স্ট্রোকের হাত থেকে রক্ষা করতে পারে।

আন্তর্জাতিক একটি গবেষক দল দাবি করেছেন, খাওয়ার পর রক্তের ‘লিপিডস’ ও বিশেষ ধরনের চর্বি ‘ট্রাইগ্লিসেরাইড’য়ের পরিমাণ বেড়ে যায়। ফলে ধমনী অনমনীয় হয়ে যায়। যা থেকে হতে পারে হৃদরোগ।

গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে, যেসব স্বাস্থ্যবান পুরুষর উচ্চমাত্রায় চর্বিযুক্ত খাবারের সঙ্গে প্রায় তিন আউন্স পরিমাণ বাদাম গ্রহণ করেন তাদের রক্ত প্রবাহে লিপিডের পরিমাণ বেড়েছে তুলনামূলক কম এবং ‘ট্রাইগ্লিসেরাইড’য়ের মাত্রা কমেছে প্রায় ৩২ শতাংশ।

 পেনসিলভেনিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক পেনি ক্রিস-ইথারটন বলেন, “খাওয়ার পর সাধারণত আমাদের ধমনী কিছুটা শক্ত হয়ে যায়। তবে যদি খাবারের সঙ্গে বাদাম খাওয়া হয় তাহলে তা ধমনী শক্ত হওয়া রোধ করতে সাহায্য করে।”

ধমনীর চারপাশের আবরণের কোষগুলোতে যখন এই শক্ত হওয়ার ঘটনা ঘটে তখন ধমনীর স্থিতিস্থাপতকতা কমে যায়। কারণ হল, কোষে নাইট্রিক অক্সাইডের সরবরাহ কমে যাওয়া, যা ধমনীর স্থিতিস্থাপকতা বজায় রাখতে সাহায্য করে।

জার্নাল অফ নিউট্রিশন’য়ে প্রকাশিত এই গবেষণায় ক্রিস-ইথারটন আরও বলেন, “খাওয়ার পর ‘ট্রাইগ্লিসেরাইডস’ বেড়ে যায়। যা সাধারণত ধমনীর নমনীয়তা কমিয়ে দেয়। তবে বাদাম এই ‘ট্রাইগ্লিসেরাইডস’য়ের বৃদ্ধি রোধ করে।”

দিন যত যায়, ধমনীর শক্ত হওয়ার কারণে এর মধ্য দিয়ে রক্তপ্রবাহ ততই কমতে থাকে। ফলে, হৃদযন্ত্রের অতিরিক্ত চাপ পড়তে থাকে, যা ক্রমেই মারাত্বক হৃদরোগের দিকে ঠেলে দেয়। ক্রিস-ইথারটনের ভাষায়, “অনেকদিন ধরে হৃদপিণ্ডের পরিশ্রম বেশি হওয়ার কারণে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে যাওয়ার দিকে নিয়ে যায়।”

অতএব আরেকবার না ভেবে পরিমান মেনে দিনে একবার চীনাবাদাম খেতে পারেন নিশ্চিন্তে।  এতে ভালো থাকবে আপনার হৃদযন্ত্র।


 

 
Accessibility | Copyright | Disclaimer | Hyperlinking | Privacy | Terms and Conditions | Feedback | E-paper | Citizen Service
 
© aajkeronlinekagaj, Agartala 799 001, Tripura, INDIA.